বিজনেস ট্রিপ সহজ করার ৬ টি কৌশল

যে কোন উপায়ে আমরা এমন কোন জায়গায় কাজ করতে চাই যেখানে আমরা পুরো প্রিথিবি ঘুরে বেরাতে পারবো! এটাকে বলে ব্যবসায়িক ঘুরাঘুরি। হ্যাঁ, এটি বে মজার এবং আনন্দদায়ক কিন্তু এর বেশ কিছু ঝামেলাও রয়েছে। ব্যবসায়ীরা সাধারানত বিমানবন্দরে নান ধরনের ঝামেলায় পরেন। কিছু জিনিস খুব গুরুত্তপূর্ণ যখন ঘুরাঘুরি করতে বের হবেন

১। হালকা প্যাক করুন

সবসময় হালকা প্যাক করুন। এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ যে দুটো ব্যাগ ছাড়াই আপনার প্রয়োজনীয় সকল জিনিস সাথে নিচ্ছেন। প্রথম কারন, এতে বেশি সময় লাগে আর দ্বিতীয় কারন,এতে বেশি টাকারও দরকার হবে। অবশ্যই আমরা কম টাকা খরচ করতে চাই।

হালকা ব্যাগ নেয়ার চেষ্টা করুন কারন এতে আপনার জায়গা নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। হালকা ব্যাগ হলে আপনি আপনার পায়ের উপর কিংবা সিটের সামনেই রেখে দিতে পারবেন। তাড়াহুড়ো না করে সল্প সময়ে প্লেনে চড়ে বসুন।

তারপর, আপনাকে একটি প্যাকেজিং স্ট্রাটজি তৈরি করতে হবে। ভাবুন আপনাকে কতবার কাপড় পালটাতে হবে এবং একটু অতরিক্ত নিয়ে রাখুন। আপনি কাপড় গোছানোর নান ধরনের টিপ পাবেন ইন্টারনেটে।

২। সল্প সময়ে বিমানবন্দরের সিকিউরিটি পার হউন

যে কোন ধরনের ভ্রমনে সিকিউরিটি বড় একটি হতাশার কারন। সিকিউরিটি প্রক্রিয়া সবসময়ই ঝামেলার এবং হয়তো আপনার ফ্লাইটটি ও মিস হয়ে যেতে পারে।

আপনি কি My TSA এর নাম শুনেছেন?যারা ব্যবসার কাজে প্রচুর ঘুরাঘুরি করেন তাদে জন্য এটি খুবই উপকারী যাতে তারা ফ্লাইট এর সময়সুচি সম্বন্ধে জানতে পারেন এবং আপনি এতে আবহাওয়া সংবাদ ও জানতে পারবেন।

৩। ফ্লাইট বিলম্ব হতে রক্ষা পান

ফ্লাইটে বিলম্ব এখন অনিবার্য। ব্যবসার কাজে যারা ভ্রমন করেন তারা খুব ভালো করেই এটি জানেন। আপনার সময় খুব গুরুত্বপূর্ণ এবং শুধু শুধু বসে অময় কাটানোর সময় আপনার নেই। কেমন হয় যদি ওই সময়ে আপনি কোন প্রোডাটিভ কাজ করতে পারেন?

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ মোবাইল আপ হল” অ্যাপ ইন দি এয়ার” এটি অনেকটা বহনযোগ্য সেক্রেটারির মত কাজ করবে। এটি আপনাকে অবগত করবে আশেপাশের ভালো খাবারের দোকান এবং ফ্রি ওয়াই-ফাই কোথায় পাবেন। তারপর ল্যাপটপটি নিয়ে কাজ করতে বসে পড়ুন।

৪। টাইম জোন নিয়ে দ্বন্দ্ব

টাইম জোন নিয়ে দ্বন্দ্ব শুধু আলাদা টাইম জোন নিয়ে নয় বরং মাত্রও ২ ঘণ্টার ব্যবধানে ও হতে পারে। একটি ভালো সমাধা হতে পারে আপনি পর্যাপ্ত খাবার খান এবং প্রচুর পানি পান করুন। এটি খুব খারাপ হতে পারে যদি আপনার শরীর পর্যাপ্ত খাবার না পায় এবং শরীরে পুষ্টির ঘাড়টি দেখা দেয়।

হালকা ব্যায়াম করুন যখন গন্তব্যে পৌঁছাবেন যদিও এটি একটি অল্প সময়ের ভ্রমন হয়, এতে আপনি উদ্যম পাবেন সারাদিনের কাজ করার জন্য

একটু রোদে হাঁটাহাঁটি করুন সকালে কিংবা রাতে।

গাছপালার মত আমাদের শরীরেও আলোবাতাস দরকার।

৫। ফিট এবং স্বাস্থ্যবান থাকুন

আপনি মনে করতে পারেন এত ব্যস্ততার মধ্যে আপনি কিভাবে ফিট থাকবেন জিমে না যাওয়া ছাড়া কিন্তু ধৈর্যহীন হবেন না। সারাদিন অফিসে বসে থাকার চেয়ে একটু আশেপাশে হাটাচলা করাও অনেক ভালো। আর পুষ্টিকর খাবার এবং প্রচুর পানি পান করতে ভুলবেন না। চেষ্টা করবেন ফাস্ট-ফুড পরিহার করতে।

আপনি যদি ডায়েট করার কথা ভেবে থাকেন তাহলে ঘুরে আসুন অ্যাপ স্টোরে যেখানে আপনি পাবেন হ্যাপি কাউ এবং ফাইন্ড মি গ্লুটেন, একদম ফ্রি।

৬। গুরুত্বপূর্ণ প্রেসক্রিপশনের কথা মনে রাখুন

আপনি আপনার গুরুত্তপূর্ণ প্রেসক্রিপশন ের কতাহ ভুলে যেতে পারেন। আপনি এটি ভুলে বিপদে পড়তে চাইবেন না।“ইকো” নামক অ্যাপ আমাকে বিস্মিত করছে যা সহজেই আপনাকে মনে করিয়ে দিবে আপনার গুরুত্বপূর্ণ প্রেসক্রিপশন এর কথা। আপনাকে সাহায্য করবে কখন আপনার ঔষধ খেতে হবে বা আনতে হবে।

ডাউনলোড করুন “ইকো”

তারপর এটি ন্যাশনাল স্বাস্থ্য কেয়ারে তথ্য পাঠাবে এবং আপনার তথ্য তাদের ১০ টি পার্টনারকে আপনার তথ্য দিয়ে অবগত করবে।

আপনি ফ্রি সেবা পেতে পারেন ঔষধ ডেলিভারির জন্য।

আপনি এখন তথ্যটি জানেন কিভাবে আপনার সমস্যা সমাধান করতে পারেন। আপনার ভ্রমন সুন্দর হোক।

এখনও কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।